কিশোরগঞ্জে করোনায় আরও ১ জনের মৃত্যু, একদিনে রেকর্ড শনাক্ত ১৭৫

সাতকাহন ডেস্ক
ফাইল ছবি

করোনা সংক্রমণে স্বাস্থ্য অধিদফতর চিহ্নিত অতি উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ জেলা কিশোরগঞ্জে ২৪ ঘণ্টায় ১ জনের মৃত্যু হয়েছে। এনিয়ে জেলায় মোট ১৩৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। ৬০৭ জনের নমুনা পরীক্ষা করে নতুন করে ১৭৫ জনের শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে জেলায় এ পর্যন্ত মোট ৮ হাজার ২৯০ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ চিহ্নিত হয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪৭ জন।

রোববার নতুন করে করোনা সংক্রমণ শনাক্তের এ তালিকায় জেলার সদর উপজেলায় ১১৫ জন, হোসেনপুর উপজেলায় ১৯ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ৯ জন, তাড়াইল উপজেলায় ২ জন, পাকুন্দিয়া উপজেলা ৮ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ৪ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ১ জন, ভৈরব উপজেলায় ৪ জন, নিকলী উপজেলায় ৪ জন, বাজিতপুর উপজেলায় ৪ জন, ইটনা উপজেলায় ১ জন, মিঠামইন উপজেলায় ৩ জন ও অষ্টগ্রাম উপজেলায় ১ জন রয়েছেন।

এ নিয়ে জেলায় এ পর্যন্ত মোট মোট ৮ হাজার ২৯০ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ চিহ্নিত হয়েছে।

জেলা করোনা প্রতিরোধ কমিটির সদস্য সচিব ও কিশোরগঞ্জের সিভিল সার্জন ডা. মো. মুজিবুর রহমান রোববার রাতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

নতুন করে এ ১৭৫ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ সনাক্ত হওয়ার পর এ জেলায় করোনা সংক্রমণের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে মোট ৮ হাজার ২৯০ জনে। তবে, এদের অধিকাংশই ইতিমধ্যেই সুস্থ হয়ে ওঠেছেন বলে জানিয়েছেন তিনি।

আর এ সর্বশেষ তথ্যানুযায়ী কিশোরগঞ্জ জেলার উপজেলা ভিত্তিক এই সংখ্যা দাঁড়িয়েছে, সদর উপজেলার ৩৭৮৬ জন, হোসেনপুর উপজেলার ২৮১ জন, করিমগঞ্জ উপজেলায় ৩২৩ জন, তাড়াইল উপজেলায় ২৩৮ জন, পাকুন্দিয়ায় উপজেলায় ৪৫৫ জন, কটিয়াদী উপজেলায় ৬২৪ জন, কুলিয়ারচর উপজেলায় ৩১০ জন, ভৈরব উপজেলায় ১৪৪৬ জন, নিকলী উপজেলায় ১০১ জন, বাজিতপুর উপজেলায় ৫০৬ জন, ইটনা উপজেলায় ৮১ জন, মিঠামইন উপজেলায় ৮৮ জন, ও অষ্টগ্রাম উপজেলায় ৫৫ জন।

সূত্রমতে, আক্রান্তদের মধ্যে ৬ হাজার ১৮৩ জন ইতিমধ্যেই সুস্থ হয়ে স্বাভাবিক জীবনে ফিরে গেছেন। বাকিরা আইসোলেশন কিংবা হোম কোয়ারেন্টিনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এ পর্যন্ত করোনা সংক্রমণের শিকার হয়ে কিশোরগঞ্জ জেলায় শিশু, যুবকসহ বিভিন্ন বয়সের ১৩৭ জন নারী-পুরুষের মৃত্যু হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত