• প্রচ্ছদ
  • »
  • সারা দেশ
  • »
  • ভৈরবে ফের চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ, গণমাধ্যম কর্মীর স্ত্রী গুরুতর আহত

ভৈরবে ফের চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ, গণমাধ্যম কর্মীর স্ত্রী গুরুতর আহত

ভৈরব প্রতিনিধি

কয়েকদিনের ব্যবধানে ফের চলন্ত ট্রেনে পাথর নিক্ষেপের ঘটনায় মমতাজ মরোয়া নামে এক গৃহবধূ গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন।

তিনি কুলিয়ারচর প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি ও দৈনিক ইত্তেফাকের স্থানীয় প্রতিনিধি মো: রফিক উদ্দিনের স্ত্রী বলে জানা গেছে।

বিলম্বে প্রাপ্ত খবরে জানা গেছে, মমতাজ মরোয়া তার স্বামী সাংবাদিক রফিক উদ্দিন ও পরিবারের সদস্যদের সাথে নিয়ে  কুলিয়ারচর রেল স্টেশন থেকে আন্ত:নগর  এগারো সিন্দুর এক্সপ্রেস ট্রেন গোধূলীতে করে ঢাকার উদ্দেশ্য রওনা হয়েছিলেন।

সোমবার  বিকেলে কুলিয়ারচর রেল স্টেশন ছেড়ে ভৈরবের কালিকা প্রাসাদ স্টেশনে যেতেই এ পাথর হামলার ঘটনা ঘটে।

আহত নারী মমতাজ মরোয়া'র  মেয়ে নুসরাত জাহান  জানায়, সে তার মা ও পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের সাথে ওই ট্রেনে  ঢাকা যাচ্ছিলেন।

ট্রেনটি ভৈরবের কালিকাপ্রসাদ এলাকায় অতিক্রম কালে অজ্ঞাত ব্যক্তি কর্তৃক পাথর হামলার শিকার হন মমতাজ মরোয়া।

এতে তার মাথা ফেটে রক্তের  ফিনকি ছুটছিল। পরে  ভৈরব বাজার রেলওয়ে জংশন হাসপাতালে তাকে চিকিৎসা দেওয়া হয়।

মেয়ে নুসরাত জাহান এ ঘটনায় তার নিজ ফেসবুক আইডিতে ভিডিও চিত্র এবং ছবি সম্বলিত একটি পোস্ট দিলে মূহুর্তেই পোস্টটি  ভাইরাল হয়ে ওঠে।

এ বিষয়ে কুলিয়ারচর রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মো. রফিকুল ইসলাম বলেন, এসব বিষয়ে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ জোরালো পদক্ষেপ নিচ্ছে। যারা চলন্ত ট্রেনে পাথর ছুঁড়ে মারছে তাদের চিন্তিত করে, দ্রুত আইনের আওতায় আনতে কাজ করছে রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ।

এ ব্যাপারে ভৈরব জিআরপি থানার ওসি ফেরদাউস আহমেদ বিশ্বাসের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, ভুক্তভোগী নারী এ ঘটনাটি আমাদেরকে না জানিয়েই দ্রুত প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে একই ট্রেনে ঢাকা ঢাকা যান। আমরা মধ্যরাতে লোকমুখে এ ঘটনাটি শুনে  হামলাকারীকে সনাক্ত ও আটক করতে তদন্ত  শুরু করেছি।

উল্লেখ্য, এর আগে গত ২ সেপ্টেম্বর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পৌণে ছয়টার দিকে ভৈরব রেলওয়ে জংশন এর লক্ষী পুর লেবেল ক্রসিং এলাকায় পাথর হামলায় গুরুতর আহত হয়ে দুটি চোখই হারাতে বসেছেন  কিশোরগঞ্জ থেকে ঢাকা গামী আন্ত:নগর  কিশোরগঞ্জ এক্সপ্রেস ট্রেনের সহকারী চালক কাওসার আহম্মেদ। 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত