ট্রাকের ধাক্কায় পাখিভ্যানের ৪ জন নিহত

সাতকাহন ডেস্ক

কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় ট্রাকের ধাক্কায় চারজন নিহত হয়েছেন। সোমবার (১০ জানুয়ারি) ভোর সাড়ে ৫টার দিকে সদর উপজেলার বটতৈল দক্ষিণপাড়া এলাকায় মন্ডল হোটেলের সামনে কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ সড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

কুষ্টিয়া হাইওয়ে পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ইদ্রিস আলী ৪ জন নিহত হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহত চারজনের মধ্যে তিনজন বিড়ি শ্রমিক ছিলেন বলে জানা গেছে।

নিহতরা হলেন- সদর উপজেলার স্বস্তিপুর এলাকার হজেল হোসেনের ছেলে ভ্যানচালক মুক্তার হোসেন (৫০), একই এলাকার আজিজুল হকের স্ত্রী জেসমিন (৩০), আলামপুর হালদারপাড়ার এলাকার ভাদু মোল্লার মেয়ে রোজিনা খাতুন (২৭) এবং হালদারপাড়ার মনোরঞ্জনের স্ত্রী স্বপ্না রানী (৪৫)।

এ ঘটনায় আহত কুষ্টিয়া সদর উপজেলার আলামপুর ইউনিয়নের বালিয়াপাড়া গ্রামের শরিফুলের স্ত্রী তহমিনা খাতুনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় কুষ্টিয়া ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাব্বিরুল আলম জানান, সোমবার ভোর সাড়ে ৫টার দিকে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বটতৈল দক্ষিণপাড়া এলাকায় মন্ডল হোটেলের সামনে কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ সড়কে ঝিনাইদহগামী দ্রুতগাতির একটি ট্রাক বিপরীত দিক থেকে আসা একটি যাত্রীবাহী পাখিভ্যানকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই চারজনের মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে হাইওয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে মরদেহ চারটি উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠায়। এতে ভ্যানের একজন যাত্রী গুরুতর আহত হয়েছেন। তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

কুষ্টিয়া হাইওয়ে পুলিশের ওসি ইদ্রিস আলী জানান, ট্রাকের চালক পলাতক। তবে ট্রাকটি পুলিশ আটক করেছে।

আগের দিন রোববার রাত সাড়ে ৯টার দিকে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার তারাগুনিয়ায় ট্রাকের ধাক্কায় দুই মোটরসাইকেল আরোহী নিহত হন।