বিশ্বের শীর্ষ ৫ সংবাদভিত্তিক ইউটিউব চ্যানেলের তালিকায় যমুনা টেলিভিশন

সাতকাহন ডেস্ক
বিশ্বের শীর্ষ ৫ সংবাদভিত্তিক ইউটিউব চ্যানেলের তালিকায় যমুনা টেলিভিশন। ছবি: সাতকাহন

গোটা বিশ্বের শীর্ষ পাঁচ সংবাদভিত্তিক ইউটিউব চ্যানেলের তালিকায় উঠে এসেছে বাংলাদেশের শীর্ষ সংবাদমাধ্যম যমুনা টেলিভিশনের ইউটিউব চ্যানেল।

মার্কিন জরিপকারী প্রতিষ্ঠান সোশ্যাল ব্লেড-এর র‍্যাংকিংয়ে এ চিত্র উঠে এসেছে। বৈশ্বিক তালিকায় বাংলাদেশের কোনো সংবাদমাধ্যমের ইউটিউব চ্যানেলের শীর্ষ পাঁচে উঠে আসার ঘটনা এই প্রথম। বস্তুনিষ্ঠতা ও দর্শক চাহিদার কথা মাথায় রেখে কন্টেন্ট দেয়ার কারণে মাত্র আড়াই বছরেরও কম সময়ে ৪০ লাখের বেশি সাবস্ক্রাইবারের ভালোবাসা পেয়েছে যমুনা টেলিভিশন।

সোশ্যাল ব্লেডের এই তালিকায় শীর্ষে আছে ভারতের সংবাদভিত্তিক চ্যানেল আজ তাক। জনপ্রিয় মার্কিন সংবাদভিত্তিক চ্যানেল সিএনএন’র অবস্থান ৯-এ। ভারতের জনপ্রিয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভির অবস্থান ১০-এ। মার্কিন সংবাদ মাধ্যম ফক্স নিউজের অবস্থান-১৪ তম। পাকিস্তানের শীর্ষ সংবাদ চ্যানেল জিও নিউজের অবস্থান ৪০-তম। ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্যম বিবিসি নিউজের হিন্দি সংস্করণের অবস্থান ২৫-তম আর ইংরেজি সংস্করণের অবস্থান ৬১-তম। আল জাজিরা অ্যারাবিক আছে ৪২-তম অবস্থানে। দ্যা টেলিগ্রাফের ইউটিউব চ্যানেল ৯৪-তম অবস্থানে। তালিকায় শীর্ষ ১০০’র মধ্যে বাংলাদেশি নিউজ চ্যানেল ইনডিপেনডেন্টও আছে (৫৯-তম অবস্থানে)। সোশ্যাল ব্লেডের তালিকায় সাবস্ক্রাইবারের পাশাপাশি চ্যানেলের কন্টেন্টের ভিউ, ফিডব্যাক ও সামগ্রিক প্রভাব বিবেচনায় নেয়া হয়েছে।

এমন সাফল্যের রহস্য কী? জানতে চাইলে যমুনা নিউমিডিয়া টিমের ইনচার্জ রুবেল মাহমুদ বলেন, দায়িত্বশীলতার সাথে সত্য ও সঠিক কন্টেন্ট ফলোয়ারদের সামনে উপস্থাপনের ব্যাপারে আমরা বদ্ধ পরিকর। পাশাপাশি, দৈনন্দিন নিউজ কন্টেন্ট ছাড়াও সংবাদভিত্তিক বিভিন্ন অনুষ্ঠান, বিশ্লেষণ থাকে আমাদের চ্যানেলে। এক কথায় কন্টেন্টের বৈচিত্র্য ও দায়িত্বশীল উপস্থাপনই আমাদের চ্যানেলটিকে এগিয়ে দিয়েছে। আরেকটি বিষয় উল্লেখ করতে চাই, আমরা অনেক চ্যানেলের মতো ফেইক নিউজ ও ক্লিকবেইট হেডলাইন দিয়ে মানুষকে আকর্ষণ করার চেষ্টা করি না। ফলে, এই অর্জন আমাদের অনুপ্রাণিত করছে।

এমন অনন্য অর্জনের জন্য প্রতিষ্ঠানের সকল সহকর্মীদের অভিনন্দন জানিয়ে যমুনা টেলিভিশনের প্রধান বার্তা সম্পাদক ফাহিম আহমেদ বলেন, এই অর্জন আমাদের আরও দায়িত্বশীল করে তুলবে। করোনা পরিস্থিতির কথা চিন্তা করে আমরা কোনো ধরনের উদযাপন করছি না। তবে আমাদের দর্শক, ফলোয়ারদের প্রতি ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি। আমাদের বিভিন্ন প্ল্যাটফর্মে তাদের স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ আমাদের কর্মস্পৃহা আরও বৃদ্ধি করবে।